বঙ্গবন্ধুর খুনি মাজেদের লাশ সোনারগাঁয়ে দাফন

নারায়ণগঞ্জের কন্ঠ:

শনিবার (১১ এপ্রিল) দিবাগত রাত ১২টা ১মিনিটে বঙ্গবন্ধুর আত্মসৃকীতি ঘাতক খুনি ক্যাপটেন (বরখাস্ত) আবদুল মাজেদের ফাঁসি কার্যকর হয়। এরপর তার মরদেহ স্ত্রী সালেহা বেগমের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

এসময় তারা সিদ্ধান্ত নেয় তার গ্রামের বাড়ি ভোলায় তার লাশ দাফন করা হবে কিন্তু সেখানে এলাকাবাসী এ সিদ্ধান্ত প্রতিহত করে জানায় সেখানে তার লাশ দাফন করতে দেয়া হবে না।

পরে তার পরিবার সিদ্ধান্ত নেয় গোপনে তার শ্বশুর বাড়ি এলাকা নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে লাশ দাফন করবে। এরপর রোববার ভোররাতে সোনারগাঁয়ের সম্ভুপুরা ইউনিয়নের হোসেনপুর স্কুলের পাশের কবরস্থানে লোক চক্ষুর আড়ালে  দাফন সম্পন্ন করা হয়। তবে পুলিশ বিষয়টি নিশ্চত করতে পারেনি।

স্থানীয়রা নাম প্রকাশ না করে জানিয়েছেন, রোববার ভোর রাতে কয়েকটি গাড়ি আসে সোনারগাঁ সম্ভুপাড়া উপজেলার সাত গ্রাম কবরস্থানে। পরে ভোরের আধারে আবদুল মাজেদের লাশ দাফন করে তার পরিবার।

এ ব্যাপারে সোনারগাঁও থানায় কর্তব্যরত ডিউটি অফিসার উপপরিদর্শক (এসআই) আব্দুল ওয়াদুদের সাথে কথা হলে তিনি জানান, প্রশাসনিকভাবে তারা এই খবরটি এখনো নিশ্চিত না তাদের কাছে এরকম কোন খবর আসেনি তারা এ বিষয়ে এখনো কিছু জানতে পারেনি।

এ বিষয়ে সোনারগাঁও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনিরুজ্জামান জানান, আবদুল মাজেদকে সোনারগাঁয়ে দাফন করা হয়েছে এমন খবর লোক মারফতে শুনেছি। কিন্তু এ বিষয়টি এখনও আমরা নিশ্চিত হতে পারেনি।

সোনারগাঁ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাইদুল ইসলাম জানান, মাজেদের দাফন প্রক্রিয়া সম্পর্ণ কেন্দ্রীয় ভাবে করা হয়েছে। স্থানীয় প্রশাসনকে জানানো হয়নি। সকালে তিনি বিভিন্ন জনের কাছ থেকে জানতে পেরে খোঁজ খবর নিতে শুরু করেন। খোঁজ নিয়ে তিনি বলেন মাজেদের মরদেহ অ্যাম্বুলেন্সে করে এনে দাফন করে চলে যায়।

এদিকে সকালে ঘটনা জানাজানি হলে এ নিয়ে এলাকায় চরম ক্ষোভ দেখা দিয়েছে। সোনারগাঁ উপজেলা ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির সভাপতি শেখ এনামুল হক বিদেশ বলেন, আমাদের ইউনিয়নকে কলঙ্কিত করা হয়েছে কার অনুমতিতে কীভাবে এখানে লাশ দাফন করা হলো আমরা প্রশাসনের কাছে জানতে চাইবো।

এব্যাপারে সামাজিক সংগঠন ব্রাইট সোনারগাঁ এর সভাপতি অাকতার হাবিব বলেন, বঙ্গবন্ধুর খুনি মাজেদের লাশ তার নিজ এলাকা ভোলাতেই দাফন করতে দেয়া হয়নি। অথচ রাতের অাধারে গোপনে সোনারগাঁয়ের মানুষের মতামত ছাড়া এই ঘৃণিত খুনিকে জামাই অাদরে দাফন করা হলো। এটা সত্যি দু:খ জনক। সোনারগাঁবাসীর প্রতি অন্যায় করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, বঙ্গবন্ধু হত্যায় জড়িত মাজেদ ২৩ বছর ধরে পলাতক থাকলেও ৬ এপ্রিল মধ্যরাতে রিকশায় ঘোরাঘুরির সময় তাকে মিরপুর থেকে গ্রেফতার করে পুলিশের কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম (সিটিটিসি) ইউনিট।

পরে তাকে ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট (সিএমএম) আদালতে হাজির করে সিটিটিসি। এরপর মাজেদকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন আদালত।

৮ এপ্রিল মৃত্যুর পরোয়ানা পড়ে শোনানোর পর সব দোষ স্বীকার করে রাষ্ট্রপতির কাছে প্রাণভিক্ষা চান আবদুল মাজেদ। প্রাণভিক্ষার আবেদনটি নাকচ করে দেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ।

এরপর থেকেই শুরু হয় তার ফাঁসি কার্যকরের প্রক্রিয়া। কারাবিধি অনুযায়ী শুক্রবার তার পরিবারের ৫ জন সদস্য শেষ সাক্ষাৎ করেন। পরে তার ফাঁসি কার্যকর করা হয়।

আপডেট

বিএনপি নেতা আজাদের উপর হামলাকারীদের গ্রেফতারের দাবী সাখাওয়াতের

নারায়ণগঞ্জের কন্ঠ :  বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ৩৯তম শাহাদাৎ বার্ষিকী কর্মসূচি পালন শেষে ফেরার পথে বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-আন্তর্জাতিক বিষয়ক...

খোরশেদ দম্পতির রোগমুক্তি কামনায় মাসদাইর কেন্দ্রীয় শ্বশানে ভক্তদের বিশেষ প্রার্থনা

নারায়ণগঞ্জের কন্ঠ : প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের  নাসিক ১৩নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও মাসদাইর কেন্দ্রীয় সিটি শ্বশান কবরস্থান উন্নয়ন কমিটির...

সোনারগাঁওয়ে করোনায় আক্রান্ত অসহায় দুটি পরিবারের পাশে লায়ন বাবুল

নারায়ণগঞ্জের কন্ঠ : সোনারগাঁও উপজেলার বারদী ইউনিয়নে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার কারণে লকডাউনে পড়া অসহায় দুটি পরিবারের পাশে দাঁড়িয়েছে সোনারগাঁও ভূঁইয়া ফাউন্ডেশনের...

বিএনপি নেতা আজাদের উপর হামলা রাজিবের নিন্দা ও প্রতিবাদ

নারায়ণগঞ্জের কন্ঠ: আড়াইহাজারে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ৩৯তম শাহাদাৎ বার্ষিকী কর্মসূচি পালন শেষে ফেরার পথে বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-আন্তর্জাতিক বিষয়ক...

আজাদের উপর হামলা মহানগর যুবদলের যুগ্ম সম্পাদক সোহাগের নিন্দা ও প্রতিবাদ

নারায়ণগঞ্জের কন্ঠ: আড়াইহাজারে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ৩৯তম শাহাদাৎ বার্ষিকী কর্মসূচি পালন শেষে ফেরার পথে বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-আন্তর্জাতিক বিষয়ক...